Read In
Whatsapp
Advertisement

Honda shine অথবা Hero Splendor নয়, বাজার দখল করছে এই বাইক! দাম মাত্র এত

Honda-র এই বাইক এখন মার্কেট কাপাচ্ছে

Published By: Ritwik | Published On:
Advertisements

উৎসবের মরশুমের কথা মাথায় রেখে Honda তাদের Livo গাড়িটির নতুন ভার্সন লঞ্চ করেছে বাজারে। আপডেটেড ইঞ্জিনের সাথে বাজারে এসেছে নতুন Livo। এই বাইকে স্মার্ট ফিচারস ছাড়াও পুরো 10 বছরের ওয়ারেন্টি দিচ্ছে Honda! তাই চলুন দেখে নেওয়া যাক গাড়িটিকে।

Advertisements

ইঞ্জিন ও মাইলেজ: Honda Livo বাইকে কোম্পানি নতুন OBD2 কমপ্লায়েন্ট 109 সিসির সিঙ্গেল সিলিন্ডার এয়ার কুল ইঞ্জিন ব্যবহার করেছে। আর এই ইঞ্জিনটি মোট 8.67bhp শক্তি এবং 9.30Nm টর্ক জেনারেট করতে সক্ষম। ARAI সার্টিফায়েড 60 কিমি মাইলেজ পাওয়া যায় এই গাড়িতে।

#Recommended
লঞ্চ হয়ে গেল নতুন Hero Mavrick, 2 লাখেরও কম দামেই মিলছে শক্তিশালী 440
KTM বা Pulsar নয়, নতুন বছরে বাজারে ধামাল মাচাবে Yamaha এর নতুন বাইক
Hero Mavrick : হিরো লঞ্চ করল তাদের ফ্ল্যাগশিপ বাইক, বুকিং শুরু হচ্ছে এ
কামাল করল হোন্ডার এই বাইক, কম দামেই থাকছে দূর্দান্ত ফিচারস
মাত্র 20 হাজারেই বাড়ি নিয়ে যান নতুন Honda Shine 100, দেখে নিন কি করত
নতুন Honda SP 160 কেনবার কথা ভাবছেন? মাসগেলে কত খরচ হবে দেখে নিন
খতরনাক লুক সহ ধাসু ইঞ্জিন, Yamaha-র এই বাইকে সাধ্যের মধ্যেই থাকছে সমস্
বছরের শুরুতেই আসছে নতুন Ninja, বাজার কাঁপাতে তৈরী Kawasaki
গেম চেঞ্জিং বাইক নিয়ে এল হোন্ডা! দাম এবং ফিচারস সাধ্যের মধ্যেই, মাইলে
KTM এবং Pulsar এর বাজার মারতে হাজির Yamaha এর নতুন MT-15, ধাসু লুকের স

লিভো বাইকে আপনি ফুয়েল ইনজেকশন ও সাইলেন্ট স্টার্ট প্রযুক্তির সুবিধা পেয়ে যাবেন। গাড়িতে প্রোগ্রামড ফুয়েল ইনজেকশন (PGM-FI) প্রযুক্তি পারফরম্যান্স উন্নত করার পাশাপাশি এর মাইলেজও বাড়িয়ে দেয় অনেকখানি।

সাসপেনশন এবং ব্রেকিং : Livo বাইকে 4-গতির ট্রান্সমিশন গিয়ারবক্স রয়েছে। বাইকে 18-ইঞ্চির অ্যালয় হুইল থাকছে। এটি সামনের দিকে টেলিস্কোপিক ফর্ক এবং পিছনে ডুয়াল স্প্রিং সাসপেনশন দ্বারা সজ্জিত। উভয় চাকাই স্ট্যান্ডার্ড হিসাবে ড্রাম ব্রেকের সাথে আসে, কিন্তু আপনি হাই ভেরিয়েন্ট কিনলে সেখানে ডিস্ক ব্রেকের সুবিধা দেখতে পাবেন।

ফিচারস : গাড়িটি যে সেগমেন্টে আসে সেই তুলনায় অনেক বেশি ফিচারস রয়েছে এই গাড়িতে। সেখানে ইন্টিগ্রেটেড ইঞ্জিন স্টার্ট/স্টপ সুইচ, ডিসি হেডল্যাম্প, কম্বাইন্ড-ব্রেকিং সিস্টেম, টিউবলেস টায়ার থাকছে। এখানে উল্লেখ্য যে , গাড়িটির ডিজাইন অনেকাংশে একই রয়েছে। তবে নতুন ভার্সনে ফুয়েল ট্যাঙ্ক এবং হেডল্যাম্পের ওপর আপডেটেড গ্রাফিক্স দিয়েছে Honda Motors।

গাড়িটির দাম কত : ড্রাম ব্রেক ভেরিয়েন্টের এক্স-শোরুম দাম রয়েছে 78,500 টাক। ডিস্ক ব্রেক ভেরিয়েন্টের এক্স-শোরুম দাম পড়বে 82,500 টাকা।