Read In
Whatsapp
Advertisement

Bajaj Pulsar : শীঘ্রই লঞ্চ হচ্ছে নতুন Pulsar, লঞ্চের আগে দেখা গেল আসন্ন Pulsar N150 এবং N160

ভারতের মোটরবাইকের বাজারে বিশেষ করে স্পোর্টি বাইকের মধ্যে বড় অংশ ধরে রয়েছে Bajaj Auto। আর এর জন্য দায়ী নতুন Pulsar। লেটেস্ট ডেটা রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে যে, বাজাজ অটোর বার্ষিক…

Published By: Ritwik | Published On:
Advertisements

ভারতের মোটরবাইকের বাজারে বিশেষ করে স্পোর্টি বাইকের মধ্যে বড় অংশ ধরে রয়েছে Bajaj Auto। আর এর জন্য দায়ী নতুন Pulsar। লেটেস্ট ডেটা রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে যে, বাজাজ অটোর বার্ষিক বিক্রয়ের মোট 50% এর জন্য দায়ী Pulsar। স্বাভাবিক ভাবেই Pulsar সাব ব্র্যান্ডের অধীনে বেশ কয়েকটি নতুন মডেল নিয়ে কাজ চালাচ্ছে কোম্পানি।

Advertisements

পালসার মডেলের আধিক্যের মধ্যে 150cc থেকে 160cc সেগমেন্ট হল হটসেলিং। এই সেগমেন্টে বাজাজ অটোর পুরানো পালসার 150, পালসার N150 এবং পালসার N160-এর মতো মডেলগুলির বিক্রি সবচেয়ে বেশি। 2024 সালে তাই এই সেগমেন্টে বেশ কয়েকটি নতুন জেন বাইক আনতে চলেছে বাজাজ।

#Recommended
দুরন্ত লুকের সঙ্গে ভরপুর চমক, বাজাজের নয়া মডেল দেখে উড়ু উড়ু মন বাইক-
বাজারে এল Pulsar N150 এবং N160 এর নতুন ভার্সন, দেখুন কত দামে বাইক লঞ্চ
2024 এ বাজার কাঁপাবে বাজাজ, লঞ্চ হতে চলেছে ছয়টি নতুন Pulsar এবং একটি
Apache নয়, বাজার কাঁপাচ্ছে নতুন Pulsar N160! এই ফিচার অনন্য করে তুলেছ
Bajaj Pulsar : শীঘ্রই বাজারে আসছে নতুন Pulsar, লঞ্চের আগেই ফাঁস হয়ে গ
Pulsar NS 400 : বাজারে আসছে সবচেয়ে শক্তিশালী Pulsar, থাকছে নতুন ইঞ্জি
Bajaj Pulsar NS 160 : পরীক্ষা চালাতে গিয়ে ধরা পড়ল আসন্ন পালসার NS 16
Bajaj Pulsar N150 : সস্তার মধ্যেই নতুন বাইক আনছে বাজাজ, মাত্র 25 হাজার
Bajaj Upcoming Bikes : নতুন বছরে লঞ্চ হবে এই নতুন বাইক, আসছে সবচেয়ে শ
Bajaj Pulsar : শীঘ্রই লঞ্চ হচ্ছে নতুন Pulsar, এইদিন আসছে Pulsar N150 এ

2024 সালে আসন্ন নতুন জেনারেশন বাইক নিয়ে ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ কিছু টিজার শেয়ার করেছে Bajaj। যদিও এখন পর্যন্ত টুইন স্ট্রিট নেকেড বাইকগুলির সঠিক আপডেটগুলি কী হবে তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে উভয় বাইকের ডিজাইন প্রায় অপরিবর্তিত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। এমনকি রং এবং গ্রাফিক্সেও বড় পরিবর্তন থাকার সম্ভাবনা কম।

আসন্ন বাইকের আপডেটের মধ্যে একটি হতে পারে Pulsar N150 তে ডুয়াল চ্যানেল ABS এবং ডিস্ক ব্রেক থাকতে পারে। বর্তমান বাইকে সামনে ডিস্ক এবং পিছনে ড্রাম ব্রেক রয়েছে। তবে Pulsar N160 ইতিমধ্যেই ডুয়াল চ্যানেল ABS এর সুবিধা দেয়। উল্লেখ্য যে, বাইকটির সিঙ্গল চ্যানেল ABS ভার্সনও রয়েছে। কিন্তু গত নভেম্বর মাসেই সেটির বিক্রি বন্ধ করে দেয় Bajaj।

নতুন Pulsar N150 কে শক্তি জোগাবে 149.6cc সিঙ্গেল-সিলিন্ডার ইঞ্জিন। এটি 8,500rpm-এ 14.5 bhp শক্তি এবং 6,000rpm-এ 13.5 Nm টর্ক উৎপন্ন করে। অন্যদিকে Pulsar N160 কে শক্তি যোগাবে অয়েল-কুলড 164.82cc সিঙ্গেল-সিলিন্ডার ইঞ্জিন। এই ইঞ্জিন মোট 15.7 bhp শক্তি এবং 14.65 Nm পিক টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম। দুই বাইকই একটি পাঁচ-গতির গিয়ারবক্সের সাথে যুক্ত।