Read In
Whatsapp
Advertisement

কী পার্থক্য রয়েছে ভারতীয়, আমেরিকান এবং ইউরোপিয়ান ট্রাকের মধ্যে? দেখুন বিস্তারিত

আমেরিকার ট্রাকে আধুনিকতার ছাপ থাকলেও ভারতে কেন পুরনো আমলের চেহারার ট্রাক দেখা যায়

Published By: Ritwik | Published On:
Advertisements

অর্থনীতিতে ট্রাক ব্যবস্থার গুরুত্ব অপরিসীম। পৃথিবীর প্রায় সমস্ত দেশেই পণ্য পরিবহনের কাজে ব্যবহার হয় ট্রাকের। আমদানি রফতানিতে সেগুলোর খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকে, অর্থাৎ GDP এর ওপর ট্রাক ব্যবস্থার সরাসরি প্রভাব থাকে। এবার আপনি যদি ভালো করে লক্ষ্য করেন তাহলে দেখতে পাবেন যে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ট্রাকের মধ্যে বড়রকম ফারাক রয়েছে। আমেরিকা, ইউরোপ এবং ভারতের ট্রাকের মধ্যে বিস্তর ফারাক রয়েছে। আর সেগুলোই আজ আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরছি।

Advertisements

১) আমেরিকান ট্রাক : আমেরিকার ট্রাক দেখতে একদম দৈত্যাকার। সুবিশাল রাস্তায় বিরাট বিরাট গাড়ি পের হয়। দেখতে যেমন জায়ান্ট সেগুলোর কর্মক্ষমতাও ততটাই বেশি। তবে এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ন বিষয় হলো ট্রাকের কেবিন। সেখানে দীর্ঘ পথ ভ্রমণ করে বিশ্রাম নেওয়ার সুব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

#Recommended

২) ইউরোপিয়ান ট্রাক : ইউরোপিয়ান ট্রাকের সুরক্ষা ব্যবস্থার জুড়ি নেই। আমেরিকার মতো ইউরোপের ট্রাকেও রয়েছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র যা ড্রাইভারকে আরাম করার সুযোগ দেয়। কিন্তু আমেরিকার ট্রাকগুলিতে যেমন লম্বা হুইলবেশ দেখা যায় সেখানে ইউরোপের ট্রাকগুলি ছোট হুইলবেশ এবং কম্প্যাক্ট চেহারার দেখতে হয়। অবশ্য এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ন যে, গাড়িগুলো কতদূর যাতায়াত করছে তার ওপরেও নির্ভর করে। আমেরিকাতে লম্বা রোড ট্রিপ করতে হয়, সেখানে ইউরোপে ছোট দৈর্ঘ্য গেলেই হবে। কেবিনটি ডিজেল ইঞ্জিন এবং স্টিয়ারিং অ্যাক্সেলের উপরে রাখা হয়। নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ইউরোপিয়ান ট্রাকের জুড়ি মেলা ভার।

৩) ভারতের ট্রাক : ভারতে টাটা, মাহিন্দ্রা, অশোক লেল্যান্ড সহ নানান সংস্থা আধুনিক ট্রাক নিয়ে হাজির হলেও চিরাচরিত 8 টাকার ট্রাকই ব্যবহার করা হয় এখানে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় এরকমই গাড়ি দেখতে পাওয়া যায়। দেশের বিভিন্ন জায়গায় যাওয়ার সময় দিন ও রাত্রি কাটানোর জন্য কিছুটা অসুবিধার মধ্যেই কাটাতে হয়। দেশের অধিকাংশ ট্রাকগুলিতেই AC কেবিনের অভাব রয়েছে। এটি একটা বড় সমস্যার কারণ। অন্যান্য জায়গায় ট্রাকগুলো বিলাসবহুল হলেও ভারতের খরচ কমানোর জন্য সাবেকি ট্রাক ব্যবহার করা হয়।