Read In
Whatsapp
Advertisement

ল্যাম্বরগিনির মত স্টাইল এবং স্পিড! গরিবের মাসিহা টাটা নিয়ে এলো কম খরচে এই দুর্দান্ত গাড়ি

সম্প্রতি এক নতুন গাড়ির সাথে ভারতীয় জনতার পরিচয় করিয়েছে টাটা মোটরস। গাড়িটির নাম নেক্সন ইভি ম্যাক্স এক্সজেড প্লাস লাক্স। স্টাইল এবং স্পিডের কথা বললে, ল্যাম্বরগিনির সঙ্গে তুলনা করা যায় এই…

Published By: Ritwik | Published On:
Advertisements

সম্প্রতি এক নতুন গাড়ির সাথে ভারতীয় জনতার পরিচয় করিয়েছে টাটা মোটরস। গাড়িটির নাম নেক্সন ইভি ম্যাক্স এক্সজেড প্লাস লাক্স। স্টাইল এবং স্পিডের কথা বললে, ল্যাম্বরগিনির সঙ্গে তুলনা করা যায় এই গাড়ির। 5 সিটার এই গাড়িটির বেশকিছু বৈশিষ্ট্য এমন আছে যা গাড়িটিকে বাজারের সেরা গাড়ির দরজা দিয়েছে।

Advertisements

Incredible Acceleration and Charging Speeds : টাটা নেক্সন ইভি ম্যাক্স এক্সজেড প্লাস লাক্স মাত্র 9 সেকেন্ডে 0 থেকে 100 কিমি/ঘন্টা স্পিড তুলতে পারে। চার্জিং স্পিডের কথা বললে, 0 থেকে 80 শতাংশ চার্জ করার জন্য এই গাড়িটির সময় লাগে মাত্র 56 মিনিট।

#Recommended
EV battle, TATA Nexon Vs Mahindra XUV 400 , কোন বৈদ্যুতিক গাড়ি সেরা,
Upcoming EV : জলদিই বাজারে আসছে সেরা 5 বৈদ্যুতিক গাড়ি, পাবেন লম্বা মা
ভরসাযোগ্য 7 সিটার মাত্র 7 লাখে! টাটা মোটরসের এই গাড়িতে রয়েছে দারুণ স
বাজারে আসছে একগুচ্ছ নতুন গাড়ি, তালিকা রয়েছে বড় চমক
মাইলেজের সঙ্গে সেরা পারফরম্যান্স, হ্যাচব্যাকের বিভাগে ঝড় তুলবে মারুতি
সিঙ্গল চার্জে ছুটবে 857 কিমি! শানের নতুন গাড়ি দেখলে চমকে উঠবেন আপনিও
Ola Ather কে টেক্কা দিয়ে ইলেক্ট্রিক বাইক আনছে Royal Enfield, এইদিন হব
পেট্রোল বা ডিজেল নয়,এবার চলবে বৈদ্যুতিক গাড়ি! বাজেটে বড় ঘোষণা নির্ম
Hyundai থেকে Tata, নতুন বছরে বাজার কাঁপাবে এই 5 গাড়ি
Tata EV : EV বাজারে আসছে বড় পরিবর্তন, শীঘ্রই লঞ্চ হচ্ছে টাটা মোটরসের

Elegant Design and High-Tech Features : গাড়িটি মোট তিনটি আকর্ষণীয় রঙে উপলব্ধ – ডেটোনা গ্রে, প্রিস্টিন হোয়াইট এবং ইনটেনসি টিল। গাড়ির ভেতরে রয়েছে একটি অ্যাপল কার প্লে, অ্যান্ড্রয়েড অটো, হাই ডেফিনিশন রিয়ার ভিউ ক্যামেরা এবং ৬ টী ভাষায় ভয়েস অ্যাসিস্টেন্স।

Tata Nexon EV Max XZ Plus Lux – Comfort and Convenience : ভেতরে বেশ চওড়া এবং আরামদায়ক সিট এবং 350 লিটারের বুট স্পেশ জেনারেট করতে পারে। যা যাত্রী এবং লাগেজ উভয়ের জন্য যথেষ্ট৷ মাল্টি-ফাংশন স্টিয়ারিং হুইল, অটোমেটিক ক্লাইমেট কন্ট্রোশ, অ্যালয় হুইলস, ফগ লাইট এবং পাওয়ার উইন্ডোর মতো বৈশিষ্ট্য গুলি থাকলে কার না ভালো লাগে।

Powerful Performance and Efficient Charging : এতে রয়েছে 40.5 kWh ব্যাটারি। যা 250 Nm এর টর্ক তৈরি করতে সক্ষম। বিনোদনের জন্য এতে রয়েছে 10.25-ইঞ্চি HD ইনফোটেইনমেন্ট টাচস্ক্রিন সিস্টেম।

Eco-Friendly and Affordable Option : দূর্দান্ত ফিচার্স সম্পন্ন এই গাড়িটির প্রারম্ভিক মূল্য প্রায় 18.79 লক্ষ টাকা (এক্স শোরুম)। স্টাইলিশ, হাইফাই এবং তার সাথে পরিবেশ বান্ধবও বটে টাটার এই নতুন এডিশন। এটি 3.3 KW এসি চার্জার এবং তিনটি ড্রাইভিং মোড (ইকো, সিটি এবং স্পোর্ট) সহ এটি সত্যিই একটি দূর্দান্ত গাড়ি।