Read In
Whatsapp
Advertisement

সামনে মার্সিডিজ, পিছনে রেঞ্জ রোভার! এবার এই বুলেটপ্রুফ গাড়ি কিনলেন মুকেশ আম্বানি! দাম শুনলে আতকে উঠবেন

রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানির গাড়ির শখের কথা কে না জানেনা। ভারতের তথা বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিত্বদের মধ্যে একজন তিনি। খুব স্বাভাবিকভাবেই মুকেশ আম্বানি ঘোরাফেরা করেন কড়া নিরাপত্তার মধ্যে। আর…

Published By: Ritwik | Published On:
Advertisements

রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানির গাড়ির শখের কথা কে না জানেনা। ভারতের তথা বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিত্বদের মধ্যে একজন তিনি। খুব স্বাভাবিকভাবেই মুকেশ আম্বানি ঘোরাফেরা করেন কড়া নিরাপত্তার মধ্যে। আর সম্প্রতি তার এই গাড়ির কালেকশনে যুক্ত হল মার্সিডিজ-বেঞ্জ S680। এটি তার 7 তম বুলেটপ্রুফ মার্সিডিজ ফ্ল্যাগশিপ সেডান। সম্প্রতি তারই কিছু ছবি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Advertisements

কার ক্রেজি ইন্ডিয়া নামক একটি পেজ তাদের ইনস্টাগ্রামে এই ছবিগুলি শেয়ার করেছে। ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, রোলিং ইন স্টাইল। রোলিং উইথ ফুল প্রোটেকশন।’ জানিয়ে রাখি, S680 দেখতে অন্য যেকোন মার্সিডিজ-বেঞ্জ লাক্সারি সেডানের মতোই, তবে নিরাপত্তার দিক থেকে এটি অনেকটাই উন্নত। এটি রেগুলার সেডানের চেয়ে প্রায় 2 টন ভারী।

#Recommended
Best Driving Tips: ড্রাইভিং শেখার সময় এই ৪টি টিপস মনে রাখলে কমবে মৃত্
সাবধান! আজই বদলে ফেলুন নম্বর প্লেটের এই জিনিসগুলি, অন্যথায় গুনতে হবে
বেশী নয় মাত্র 5 লাখেই স্বপ্নপূরণ! এই তিন গাড়ি পূরণ করবে আপনার গাড়ি
10 লাখের বাজেটে মিলবে বিলাসবহুল সমস্ত ফিচারস! এই পাঁচ গাড়ি কিনলেই পয়
Thar-Hyundai এখন অতীত, শীঘ্রই বাজারে কাঁপাতে আসছে টাটার নয়া Blackbird
বাজেট কম? নো টেনশন, মাস গেলে ৪,৭৯২ টাকাতেই পেয়ে যান ঝাঁ চকচকে রয়্যাল
Maruti Suzuki Invicto : Fortuner বা Innova নয়, বাজারে ঝড় তুলেছে মারু
ভরে ভরে ফিচারস নিয়ে লঞ্চ হয়ে গেল Tata Punch EV, কমদামেই নিয়ে যান দুরন্
বিক্রির নিরিখে ভারতসেরা! সবাইকে পিছিয়ে এগিয়ে গেল মারুতির এই গাড়ি
পাত্তা পাবেনা Fortuner, Maruti Suzuki এর নতুন গাড়ি আসার পর শুরু হয়েছ

যারা জানেন না তাদের জন্য বলি, এটি দ্বিতীয় ব্র্যান্ডের নতুন W223 প্রজন্মের মার্সিডিজ-বেঞ্জ S680 গার্ড। উল্লেখ্য, এটি 7 তম মার্সিডিজ বেঞ্জ এস ক্লাস গার্ড যা রিলায়েন্স প্রধানের গ্যারাজের শোভাবর্ধন করছে। এতে রয়েছে 999 লাইসেন্স নম্বর প্লেট। যেটি মুকেশ আম্বানির দুটি পছন্দের নম্বরের একটি। আগের কালোটিতে ছিল 333 নম্বর প্লেট।

মজার বিষয় হল, মুকেশ আম্বানি এর আগেও দুটি W222 মার্সিডিজ-বেঞ্জ S600 গার্ড কিনেছিলেন। তাদের একটিতে 333 এবং অপরটিতে 999 নম্বর প্লেট ছিল। নিরাপত্তার নিরিখে এই গাড়িটিও সেরার সেরা। এটির জন্য প্রায় 10 কোটি টাকা খরচ করেছিলেন মুকেশ আম্বানি। তবে তিনি নিজের নিরাপত্তার কথা ভেবেই হয়ত গাড়ি পরিবর্তন করেছেন।

S600 গার্ডটি একটি টুইন-টার্বোচার্জড 6.0-লিটার V12 ইঞ্জিন দ্বারা চালিত ছিল যা 523 bhp শক্তি এবং 850 Nm এর পিক টর্ক তৈরি করতে সক্ষম। এটি একটি 7-স্পীড গিয়ারবক্সের সাথে যুক্ত। এখন এই পুরোনো মডেলের জায়গায় এসেছে নতুন W223 মার্সিডিজ-বেঞ্জ S680 গার্ড। এই নতুন সুপার-সিকিউর ফ্ল্যাগশিপ সেডানটি বর্তমানে সবচেয়ে ব্যয়বহুল এবং সুরক্ষিত এস-ক্লাস মডেল। এটি VPAM VR 10 সার্টিফিকেশন প্রাপ্ত। এই শংসাপত্রটি নিশ্চিত করে যে গাড়িটি কেবল বুলেটপ্রুফ নয়, বিস্ফোরক চার্জের বিরুদ্ধেও প্রতিরোধী। গাড়িটিতে রয়েছে একটি 6.0-লিটার V12 ইঞ্জিন, যা 612 Ps এবং 830 Nm পিক টর্ক জেনারেট করে৷ দামের কথা বললে প্রায় 10 কোটিরও বেশি খরচ হয়েছে এতে।