Read In
Whatsapp
Advertisement

লঞ্চ হয়ে গেল মারুতি সুজুকির নতুন এক্সট্রা এডিশন, মাইলেজ এবং ফিচারস দেখে নিন

Extra এডিশনে কি নতুন দিয়েছে মারুতি? দেখে নিন সমস্ত ফিচারস

Published By: Ritwik | Published On:
Advertisements

ভারতের বাজারে হ্যাচব্যাক গাড়িগুলির জনপ্রিয়তা সর্বদাই অধিক। অটোমোবাইল সেক্টরে গাড়িগুলোর বাজার পরিসর বেড়েই চলেছে। চিত্তাকর্ষক মাইলেজ এবং দুর্দান্ত ফিচারসের সাথে কমপ্যাক্ট গাড়িগুলো ছোট ছোট পরিবারের মধ্যে সর্বদাই প্রথম পছন্দের। এক্ষেত্রে দামও সাধ্যের মধ্যে থাকায় সেটিও বড় ভূমিকা পালন করে।

Advertisements

শহরের ক্ষেত্রে বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের জন্য হ্যাচব্যাকগুলি অতুলনীয়। চমৎকার মাইলেজ সহ ফিচারস বাজেটের মধ্যে থাকায় হ্যাচব্যাক গুলোর গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। এক্ষেত্রে মারুতি সুজুকি সবচেয়ে বড় বাজার দখল করেছে। আর দীপাবলির ঠিক আগেই তারা নতুন সংস্করণ উন্মোচন করেছে। চলুন দেখে নেওয়া যাক কি নতুন নিয়ে এসেছে মারুতি সুজুকি।

#Recommended
Upcoming EV : জলদিই বাজারে আসছে সেরা 5 বৈদ্যুতিক গাড়ি, পাবেন লম্বা মা
শীঘ্রই লঞ্চ হচ্ছে নতুন Maruti Suzuki Dzire, এবার সাধ্যের মধ্যেই পেয়ে
প্রতিটি বাড়িতেই থাকবে নতুন গাড়ি, ব্যবস্থা করল Maruti Suzuki
Maruti Suzuki Fronx: এ যেন Mini Fortuner, স্বল্প বাজেটে দুর্দান্ত গাড়
Maruti আনছে নতুন 7-সিটার MPV, যা মাইলেজ দেবে 35 এর বেশি, দাম Ertiga থে
Punch নয়, 5 লাখের বাজেটে সেরা মারুতির এই গাড়ি, পেয়ে যাবেন মনের মত ফ
মাইলেজের সঙ্গে সেরা পারফরম্যান্স, হ্যাচব্যাকের বিভাগে ঝড় তুলবে মারুতি
পেট্রোল নয় এবার বাজারে রাজ করবে হাইব্রিড গাড়ি, শীঘ্রই লঞ্চ হচ্ছে নতু
বাজারে ঝড় তুলেছে মারুতির নতুন 7 সিটার, 35 কিমি মাইলেজ সহ ঝাঁ চকচকে গা
Renault KWID নাকি Maruti Suzuki Celerio? 7 লাখের বাজেটে কোন গাড়ি সেরা

Maruti Suzuki তাদের Celerio এর নতুন Xtra এডিশন লঞ্চ করেছে বাজারে। সেখানে বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে যা গাড়ির সামগ্রিক আবেদনকে বাড়িয়ে তুলছে।Celerio তে এখন নতুন হুইল আর্চ ক্ল্যাডিং, বডি সাইড মোল্ডিং, ডোর ভিসার গার্নিশ ইনসার্ট এবং একটি মাল্টিমিডিয়া স্টেরিও সিস্টেম থাকছে। এছাড়া গাড়িতে একটি নতুন বুট ম্যাট, 3D ম্যাট, স্টিয়ারিং হুইল কভার, ডোর সিল গার্ড এবং নম্বর প্লেট গার্নিশ রয়েছে।

থাকছে পাওয়ার উইন্ডো, স্টিয়ারিং-মাউন্টেড কন্ট্রোল, রিয়ার ডিফগার, রিয়ার ওয়াইপার, হাইট-অ্যাডজাস্টেবল ড্রাইভার সিট, পুশ-বাটন স্টার্ট, হিল হোল্ড অ্যাসিস্ট, রিভার্স পার্কিং সেন্সর সহ EBD এবং ABS ও থাকছে। নিরাপত্তার জন্য দেওয়া হয়েছে দুটি এয়ারব্যাগ। ইঞ্জিনে অবশ্য সেরকম পরিবর্তন আসেনি। শক্তিশালী 1.0-লিটার 3-সিলিন্ডার ডুয়াল VVT ইঞ্জিন মোট 67 BHP শক্তি এবং 89 NM টর্ক তৈরি করে। 5-স্পীড ম্যানুয়াল এবং স্বয়ংক্রিয় গিয়ারবক্সের সাথে আসে সেটি।

উল্লেখ্য যে, গাড়িটির CNG variant ও লঞ্চ করেছে মারুতি সুজুকি। সিএনজি ভার্সনে 36km/kg মাইলেজ পাওয়া যায় আর পেট্রোল ভার্সনের মাইলেজ 26 kmpl। বর্তমানে, কোম্পানি Celerio-এর আটটি ভেরিয়েন্ট অফার করে। বেস ভেরিয়েন্টের এক্স-শোরুম দাম 5.37 লক্ষ টাকা, আর টপ ভেরিয়েন্টের এক্স-শোরুম দাম 7.14 লক্ষ টাকা। নতুন সংস্করণের দাম জানা যায়নি, কিন্তু আশা করা হচ্ছে বর্তমান মডেলের থেকে প্রায় 25,000 টাকা দাম বাড়তে পারে।