Read In
Whatsapp
Advertisement

Tesla-কে গুনে গুনে দশ গোল! ইলন মাস্কের আগেই ভারতে 300 কিমি রেঞ্জের গাড়ি লঞ্চ করবে Tata

টেসলার ভারতে প্রবেশ আরো জটিল করে দিল টাটা মোটরসের এই পদক্ষেপ!

Published By: Ritwik | Published On:
Advertisements

ইলেক্ট্রিক গাড়ির জগতে বড় অংশ ধরে রেখেছে আমেরিকান জায়ান্ট টেসলা। বাজারে বৈদ্যুতিক গাড়িকে মূলধারার গাড়িতে পরিণত করতে এলন মাস্কের টেসলার অবদান কম নয়। তবে ভারতের বুকে তারা এখনো পা রাখতে পারেনি। আর ভারতের বুকে সেই একই “বৈদ্যুতিক বিপ্লব” ঘটিয়েছে টাটা মোটরস। ভারতের লম্বা বৈদ্যুতিক গাড়ির লাইনআপ নিয়ে এসেছে তারা।

Advertisements

ভারতের অন্দরে বৈদ্যুতিক গাড়ির বাজারে লম্বা লাইন আপ নিয়ে হাজির টাটা মোটরস। হ্যাচব্যাক থেকে SUV, সমস্ত সেগমেন্টেই টাটা মোটরস তাদের নতুন বৈদ্যুতিক গাড়ি নিয়ে হাজির। আর এই বাজারে আলোচনার বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে টাটা ন্যানো। এর আগে সস্তায়, মাত্র 1 লাখেই গাড়িটি বিক্রি করেছে টাটা মোটরস। গাড়িটির বৈদ্যুতিক ভার্সন নিয়ে বাজারে শুরু হয়েছে নানান জল্পনা কল্পনা।

#Recommended
source : rushlane

ন্যানো গাড়িটির সাফল্য আসে রতন টাটার দূর দর্শনের কারণেই। বর্ষীয়ান শিল্পপতির ন্যানো গাড়িটি নিয়ে আসেন যাতে ভারতের প্রতিটি মানুষ গাড়ির সুবিধা উপভোগ করতে পারেন। সস্তায় গাড়ি লঞ্চ করে সাফল্য মিললেও সেটাই সবচেয়ে বড় ব্যর্থতাও হয়ে ওঠে গাড়িটির জন্য। ফলে ধীরে ধীরে ন্যানো গাড়িটির উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু এবার বৈদ্যুতিক ভেরিয়েন্টে গাড়িটির আসার কারণে মানুষ বেশ উৎসাহী।

যদিও ঘটনাটি নিয়ে টাটা মোটরসের তরফে এখনো সেরকম কিছু জানা যায়নি। বিভিন্ন বিশেষজ্ঞের ধারণা, আগামী 2024 সালের শেষের দিকে রাস্তায় গাড়িটিকে দেখতে পাওয়া সম্ভব হবে। 300 কিমি রেঞ্জ সহ বেশ সস্তায় আসতে পারে। এছাড়া আরো কিছু গাড়ি বেশ কমদামে নিয়ে আসতে পারে টাটা মোটরস। আর বাজারে টাটাদের শক্তিশালী উপস্থিতির কারণে টেসলা সহ অন্যান্য EV নির্মাতাদের প্রবেশ প্রায় অসম্ভব হয়ে ওঠেছে।